১৯শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২২শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

অন্যরকম একটি বেঁচে যাওয়ার গল্প


নজিবুর রসুল | PhotoNewsBD

২৯ জুন, ২০১৯, ৯:২৫ অপরাহ্ণ

“পুরোপুরি মিশরের মমির মতো দেখতে”, প্রথম দেখায় যে কারো এমন ভাবাই স্বাভাবিক। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে জলজ্যান্ত একজন মানুষ। প্রায় এক মাস নিখোঁজ থাকার পর মঙ্গোলিয়া সীমান্ত সংলগ্ন রাশিয়ার পূর্বাঞ্ছলের টুভা এলাকার একটি ভালুকের গুহা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে আলেকজান্ডার নামের এক ব্যক্তিকে।

 

একটি শিকারী দল ঐ গুহার পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় তাঁদের সাথে থাকা শিকারী কুকুরগুলি হঠাৎ থমকে দাঁড়ায়। তাড়া দেয়ার পরও তারা আর সামনে না এগিয়ে হঠাৎ করে ঐ গুহায় ঢুকে পড়ে এবং প্রায় মমির মতো দেখতে আলেকজান্ডারকে দেখতে পেয়ে চিৎকার করতে থাকে। তারপর দলের সকল সদস্যরা গুহার ভেতর থেকে মৃতপ্রায় অবস্থায় তাকে বের করে আনেন।

 

সাইবেরিয়ান টাইমসের বরাত দিয়ে ঐ শিকারী দলের সদস্যরা বলেন যে তাঁরা ধরে নিয়েছিলেন যে আলেকজান্ডার গুহার ভেতরের শুষ্ক বাতাসের প্রতিক্রিয়ায় মমিতে রূপান্তরিত হয়ে গেছেন। কিন্তু তাঁরা তাকে জীবিত দেখে হতভম্ব হয়ে যান।

 

হাসপাতালে একজন স্থানীয় সাংবাদিকের করা একটি ভিডিওতে দেখা যায়, আলেকজান্ডার খুবই ক্ষীণ স্বরে তার নাম বলতে পারছেন। তিনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানান, একটি বাদামী ভালুক সম্ভবত এক মাস আগে তাকে আক্রমণ করে। ভালুকটি তার মেরুদণ্ড ভেঙ্গে দেয় এবং গুহার ভেতরে নিয়ে যায় পরে খাওয়ার জন্য।

 

হাসপাতাল কর্মীরা জানান, তিনি খুবই দূর্বল হয়ে গেছেন। তিনি হাত নাড়াতে পারছেন, তবে চোখ খুলতে এবং কথা বলতে তাঁর বেশ কষ্ট হচ্ছে। তবে তিনি একেবারেই উঠে দাঁড়াতে পারছেন না। তাঁর শরীরে বিভিন্ন জায়গায় পচন ধরেছে এবং তাঁর আঘাতগুলিও বেশ গুরুতর।

 

বাদামী ভালুকের এই ধরণের আক্রমণ নতুন কিছু নয়। এ জাতীয় ভালুক প্রায়শই তার শিকার গুহাতে আটকে রাখে পরে খাওয়ার জন্য। তবে ডাক্তারেরা বলছেন আলেকজান্ডারের এ অবস্থায় বেঁচে থাকা দৈব ঘটনা। এ রকম ঘটনার মুখোমুখী তাঁরা এর আগে কখনো হননি।

 

রাশিয়ান একাডেমী অফ সায়েন্স-এ কর্মরত আইভান ভি. সেরিয়োডকিন-এর মতে, বাদামী ভালুকরা সত্যিই অন্য শিকারীদের হাত থেকে নিজের শিকার রক্ষা করার জন্য এটিকে লুকিয়ে ফেলে। এতে করে তাঁর শিকার একটু একটু করে নরম হতে থাকে এবং আংশিকভাবে পেকে যায় যাতে ভালুকের পক্ষে শিকার খাওয়ার জন্য সহজ হয়ে যায়।

 

“এতোদিন কিভাবে না খেয়ে বেঁচে ছিলেন?” এই প্রশ্নের উত্তরে আলেকজান্ডার জানান, তিনি নিজের মূত্র পান করতে বাধ্য হন এবং তাঁর ভয় হচ্ছিল ভালুকটি যদি আবার ফিরে আসে তাহলে তিনি হয়ত মারা যাবেন। তবে ভালুকটি আর ঐ গুহায় ফিরে আসেনি।

 

কর্তৃপক্ষ ঐ হাসপাতালের নাম ও টুভা অঞ্ছলের কোথায় এই ঘটনা ঘটেছে, এ ব্যাপারে স্পষ্ট করে কিছু বলতে পারেননি। তাঁদের ধারণা, যেহেতু টুভার হাসপাতালের রেজিস্ট্রিতে এই ঘটনার কোন উল্লেখ নেই, কাজেই, ঘটনাটি কোণ প্রত্যন্ত অঞ্ছলে ঘটে থাকতে পারে।

 

লিওনার্ডো ডি-ক্যাপ্রিও অভিনীত এবং আলেহান্দ্রো ইনোরিত্তু পরিচালিত অস্কার বিজয়ী হলিউড চলচ্চিত্র ‘দ্য রেভেনেন্ট’-এ ডি-ক্যাপ্রিও-এর উপর একটি বাদামী ভালুকের আক্রমণ দেখানো হয়। রাশিয়ার এই ঘটনাটিকে অনেকেই ‘দ্য রেভেনেন্ট’-এর কাহিনীর সাথে তুলনা করতে শুরু করেছেন।

 

সংবাদ সূত্র: সাইবেরিয়া টাইমস, ডেইলি মেইল।

সংগ্রহে: নজিবুর রসুল,
IELTS প্রশিক্ষক,
নাজিব’স ল্যাংগুয়েজ লার্নিং সেন্টার, মৌলভীবাজার।