১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৬ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

আইএস সদস্য শামীমাকে দেশে আসতে দেয়া হবেনা


ফটোনিউজবিডি ডেস্ক: | PhotoNewsBD

১৬ জুন, ২০২০, ৪:২৬ অপরাহ্ণ

যুদ্ধ বিধ্বস্ত সিরিয়ায় আইএস-এ (আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট) যোগ দেওয়া শামীমা বেগম কখনোই বাংলাদেশের নাগরিক ছিলেন না বলে স্পষ্ট জানিয়েছে সরকার।  এমনকি তাকে বাংলাদেশে প্রবেশের অধিকারও দেওয়া হবে না।

মঙ্গলবার (১৬ জুন) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, ব্রিটিশ নাগরিক শামীমা বেগম বিষয়ক সংবাদ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। বিভিন্ন গণমাধ্যম থেকে জানা যায়, শামীমা ১৫ বছর বয়সে সিরিয়ায় গিয়ে আইএস-এ যোগ দেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত বছর ফেব্রুয়ারিতে ব্রিটিশ সরকার তার নাগরিকত্ব বাতিল করে।  ব্রিটিশ সরকারের এ সিদ্বান্তের বিরুদ্ধে তিনি সে দেশের হাইকোর্ট এবং স্পেশাল ইমিগ্রেশন আপিলস কমিশনে আপিল করেন। উক্ত আদালতগুলো শামীমা বেগমের আবেদন খারিজ করে দেন এবং তাকে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত বলে উল্লেখ করেন।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের সুস্পষ্ট অবস্থান হলো- ব্রিটিশ নাগরিক শামীমা বেগম কখনোই বাংলাদেশের নাগরিক ছিলেন না; এ সংক্রান্ত তার কোনো অধিকারও নেই এবং তাকে বাংলাদেশে প্রবেশের অনুমতি দেওয়ারও কোনো অবকাশ নেই।

পূর্ব লন্ডনের ব্যাথনালগ্রিন এলাকার বাসিন্দা কিশোরী শামীমা বেগম ২০১৫ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি লন্ডনের গেটউইক এয়ারপোর্ট দিয়ে ইস্তাম্বুল তুরস্ক হয়ে সিরিয়ায় আইএসে যোগ দেন।  পরে ইয়াগো রিডজিক নামক এক আইএস জঙ্গিকে বিয়ে করেন।  ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে সিরিয়ার ক্যাম্পে মানবেতর জীবন যাপনে শামীমার এক বছর বয়সী কন্যা  ও তিন মাসের পুত্র সন্তান মারা যায়।  মানবেতর জীবন থেকে মুক্তির জন্য ব্রিটেনে ফিরে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করেন শামীমা বেগম।

তার ব্রিটেনে ফিরে আসার বিষয়টি সমাধানের জন্য আদালতে গড়ায়। বর্তমানে তাকে ব্রিটেনে ফিরিয়ে আনতে আদালতে শুনানি চলছে।