২৩শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২০শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

আগামীকাল বিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফট


ফটোনিউজবিডি ডেস্ক: | PhotoNewsBD

২৬ ডিসেম্বর, ২০২১, ৯:২৯ অপরাহ্ণ

দেশের ক্রিকেটে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক সবচেয়ে বড় আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসরের সবকিছুই চূড়ান্ত। সোমবার দুপুর ১২টায় (২৭ ডিসেম্বর) রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে হবে প্লেয়ার্স ড্রাফট।

বিপিএলের এবারের আসর শুরু হবে ২১ জানুয়ারি, শেষ হবে ১৮ ফেব্রুয়ারি ফাইনালের মধ্য দিয়ে। ড্রাফটের তারিখ আগেই নির্ধারিত ছিল। আজ গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ড্রাফটের সময় ও বিপিএলের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘আমরা যেটা পরিকল্পনা করেছি ২০ জানুয়ারি থেকে ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময়ের মধ্যে বিপিএলে আয়োজনের চেষ্টা করছি। এভাবেই আমাদের প্রোগ্রাম করা হয়েছে। আগামীকাল (সোমবার) এই ইভেন্টের প্লেয়ার্স ড্রাফট ঢাকার একটি হোটেলে হবে। বেলা ১২টার সময় শুরু হবে। এভাবেই আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে।‘

এবারের আসরে লড়বে ৬টি দল। দলগুলো ড্রাফটের আগে একজন দেশি খেলোয়াড়কে সরাসরি নিতে পারবে। প্রতিটি দলকে কমপক্ষে ১০ জন স্থানীয় খেলোয়াড় নিতে হবে। সর্বোচ্চ নেওয়া যাবে ১৪ জন। এগুলো সরাসরি চুক্তির বাইরে, ড্রাফট থেকে নিতে হবে। এছাড়া ড্রাফটের আগে তিনজন বিদেশি খেলোয়াড় দলে নেওয়া যাবে। দলে সর্বনিম্ন ৩ জন এবং সর্বোচ্চ ৮ জন বিদেশি খেলোয়াড় নেওয়া যাবে।

ড্রাফটের আগে কোন দল কোন ক্রিকেটারকে নিয়েছে এখনো বিপিএল কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানায়নি। প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘এই মুহূর্তে আমি নামগুলো বলতে পারছি না। কারণ এখনো সময় রয়েছে। আজকের মধ্যে আমাদের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো কাদের রিটেইন করেছে এবং কারা ড্রাফটে থাকবে, এই বিষয়ে একটি পরিষ্কার ধারণা পাব। যে দলগুলো অংশ নিচ্ছে আমরা এটা তাদের কাছে পাঠিয়ে দেব।‘

৫টি গ্রেডে দেশি ও বিদেশি ক্রিকেটারদের নিয়ে এবারের ড্রাফট হবে। কোন গ্রেডে কে থাকছেন ইতোমধ্যে তালিকা প্রকাশও হয়েছে। নিজামউদ্দিন বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার রয়েছে ৪০০ এর উপরে। বিভিন্ন দেশের ক্রিকেটাররা রেজিস্ট্রেশন করেছে। তারা অনলাইন রেজিস্ট্রেশন করেছে। তারা তাদের এজেন্ট ও এজেন্সির মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে।‘

এবারের বিপিএলে দর্শকরা মাঠে বসে খেলা দেখতে পারবেন। তবে সেটি ৫০ শতাংশ। করোনাভাইরাসের হানার পর সর্বশেষ পাকিস্তান সিরিজে বিসিবি দর্শক প্রবেশের অনুমতি দিয়েছিল। আর দেশের দুটি চ্যানেলে সরাসরি খেলা দেখা যাবে।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘ইতোমধ্যেই এবারের আসরের সম্প্রচার সত্ত্ব দেয়া আছে। ২০২২ সালের আসরের খেলাগুলো দুইটা চ্যানেল সরাসরি সম্প্রচার করবে। দর্শকের ব্যাপারে এখনো আমাদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। পঞ্চাশ ভাগ এটা তো থাকবেই, হয়তো এর চেয়েও বাড়তে পারে। বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল এ ব্যাপারে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি।’

টিভি ও অনলাইনে দেখা যাবে বিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফট। সরাসরি সম্প্রচার হবে জিটিভি ও টি স্পোর্টসে। বিসিবির অফিশিয়াল ফেসবুক পেজেও সরাসরি দেখা যাবে।