২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

করোনা রোগীদের মুখ থেকে মাস্ক খুলে ফলের রস


ফটোনিউজবিডি ডেস্ক: | PhotoNewsBD

২৯ এপ্রিল, ২০২১, ১০:০৮ অপরাহ্ণ

সেবা করাই তাদের লক্ষ্য! তাই হাসপাতালের কোভিড ওয়ার্ডের মধ্যে ঢুকে ফলের রস বিলি করেছে হিন্দুত্ববাদী সংগঠন রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘের অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদের( এবিভিপি) সদস্যরা। শুধু তাই নয়, রোগীদের মুখ থেকে মাস্ক খুলে তারা ফলের রস খাবেন কিনা, এই প্রশ্ন করতে শোনা গেল তাদের।

দেরাদুনের দুন মেডিকেল কলেজের কোভিড ওয়ার্ডের মধ্যে এই ঘটনাটি ঘটেছে বলে বৃহস্পতিবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে। উত্তরাখণ্ডের এই হাসপাতালে ৪০০ জন করোনা রোগী ভর্তি রয়েছে। ইতোমধ্যে হাসপাতালের ৫০ জন স্বাস্থ্যকর্মীর করোনা ধরা পড়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে, পিপিই কিট পরে ‘হাই রিস্ক জোন’ কোভিড ওয়ার্ডে প্রবেশ করেছেন বেশ কয়েকজন এবিভিপি সদস্য। ন্যাশানাল সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোলের নির্দেশিকা অনুযায়ী স্পষ্ট জানানো হয়েছে, করোনা ওয়ার্ডে কোনো দর্শনার্থী প্রবেশ নিষেধ। এই নির্দেশিকা সত্ত্বেও তারা কীভাবে কোভিড ওয়ার্ডে পৌঁছল, তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, করোনা রোগীদের মুখ থেকে অক্সিজেন মাস্ক খুলে তাদের এই স্বেচ্ছাসেবকরা প্রশ্ন করছেন, ‘আপনি জুস খাবেন?’ তাদের প্রত্যকের পিপিই কিটে এবিভিপির স্টিকার লাগানো ছিল। যদি কোনও করোনা রোগী জুস খেতে ইচ্ছুক হন, সেক্ষেত্রে তাদের থেকে ‘থামস্ আপ'(আঙুল তুলে ইশারা) চান এই স্বেচ্ছাসেবকরা।

এ ব্যাপারে উত্তরাখণ্ড কংগ্রেসের মুখপাত্র গরিমা দাসানি বলেন, ‘এই ঘটনা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। কেউ এবিভিপিকে প্রবেশের অনুমতি দিলে অন্যরাও হাসপাতালের ভেতরে প্রবেশের চেষ্টা করবে। সেক্ষেত্রে হাসপাতালের মধ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হবে। প্রশাসনের অবিলম্বে দোষীদের খুঁজে বের করে শাস্তি দেওয়া উচিত।’

দুন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. আশুতোষ সায়ানা বলেছেন, ‘আমি বিষয়টি জানি না। আমি অবিলম্বে এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে পদক্ষেপ নেব।’