২৪শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১১ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

কারাগার একটি সংবেদনশীল ও স্পর্শকাতর প্রতিষ্ঠান


ফটোনিউজবিডি ডেস্ক: | PhotoNewsBD

৫ মার্চ, ২০২০, ৭:৪৫ অপরাহ্ণ

কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম মোস্তফা কামাল পাশা বলেছেন, কারাগার একটি সংবেদনশীল ও স্পর্শকাতর প্রতিষ্ঠান, তাই দায়িত্বশীল মনোভাব নিয়ে কর্তব্য পালন করতে হয়।

বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) সকালে গাজীপুরের কাশিমপুর কারা কমপ্লেক্সে নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত ৫৭তম ব্যাচের ‘কারারক্ষীদের বুনিয়াদী প্রশিক্ষণ’ সমাপণী কুচকাওয়াজ ও শপথ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, দায়িত্ব পালনকালে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের তুলনায় এখানে বেশি চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয়।  কারাগারের নিরাপত্তার পাশাপাশি প্রশিক্ষণ দেওয়ার মাধ্যমে অপরাধীদের চরিত্র সংশোধন করে সমাজে পুনর্বাসনের লক্ষে ইতোমধ্যেই নানামুখি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।  আর এ ধরনের উদ্যোগকে সফল করতে হলে কারা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দক্ষতা বৃদ্ধি এবং যুগোপযোগী প্রশিক্ষণ দেওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

কারা মহাপরিদর্শক আরও বলেন, বাংলাদেশের সব জেলখানার উন্নতি ও অগ্রযাত্রার বিষয়টি সত্যিই ইতিবাচক প্রশংসার দাবিদার। আশা করছি, আপনাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করে সরকারের সাফল্যকে আরো ত্বরান্বিত করবেন।  কারাগারের ভেতরে থেকে জঙ্গি ও শীর্ষ সন্ত্রাসীরা যাতে কোনোরূপ সমাজ এবং রাষ্ট্রবিরোধী তৎপরতা চালাতে না পারে সে বিষয়ে সর্তক থাকতে হবে।  কারাগারের ভেতরে কোনভাবেই যাতে কারাবিধি বাইরে নিষিদ্ধদ্রব্য, বিশেষ করে মাদক ও মোবাইল ফোন প্রবেশ করতে না পারে সেদিকে সবসময় সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

অনুষ্ঠানে ৫৭তম কারারক্ষী ব্যাচে সব বিষয়ে প্রথমস্থান অধিকারী যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের কারারক্ষী নয়ন মোল্লা, দ্বিতীয়স্থান অধিকারী কুমিল্লা কারাগারের কারারক্ষী আনোয়ার হোসেন এবং বেস্ট ফায়ারার হিসেবে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের কারারক্ষী বায়োজিত হোসেনকে ক্রেস্ট দেন প্রধান অতিথি।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যর মধ্যে ডিআইজি প্রিজন্স (সদর দপ্তর) টিপু সুলতান, কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এর সুপার রত্মা রায়, কাশিপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর সুপার জাহানারা বেগম, কাশিপুর হাইসিকিউরিটি কারাগারের সুপার সফিকুল ইসলাম, কাশিমপুর কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগারের সুপার হালিমা খাতুনসহ কারা কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।