৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৬শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

মাল্টায় যেভাবে বাংলাদেশিদের সুযোগ হচ্ছে


ফটোনিউজবিডি ডেস্ক: | PhotoNewsBD

১৭ এপ্রিল, ২০২১, ১০:৫২ অপরাহ্ণ

মাল্টা ইউরোপের মধ্যে সবচেয়ে পুরাতন সভ্যতা এবং অর্থনৈতিকভাবে অনেক উন্নত একটি রাষ্ট্র। বর্তমানে প্যানডেমিকের মধ্যেও মাল্টা অর্থনৈতিকভাবে অনেক শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে। মূলত কঠিন সামাজিক অনুশাসন ও স্বাস্থ্যবিধি পালন করার জন্যই মাল্টা ইউরোপের মধ্যে প্রথম একটি দেশ, যা আগামী পহেলা জুন থেকে পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত করতে যাচ্ছে।

শুধু পর্যটকদের মাল্টা ভ্রমণের উৎসাহ দিতে দেশটির সরকার প্রত্যেক পর্যটকের জন্য প্রায় ২০০ থেকে ৫০০ ইউরো পর্যন্ত ছাড় দেওয়া শুরু করেছে। এই সুবিধাটি যারা আগামী পহেলা জুন থেকে মাল্টায় ঘুরতে আসবেন, তাদের জন্য প্রযোজ্য হবে।

যাইহোক মাল্টা অর্থনৈতিকভাবে উন্নত হওয়ার জন্য এবং ব্রেক্সিট পরবর্তীতে জিব্রাল্টার ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকে বের হয়ে যাওয়ার জন্য বর্তমানে দেশটি ইউরোপের অর্থনৈতিক কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হতে যাচ্ছে। তার মূলত কারণ দুইটি-

১. অর্থনৈতিক স্বাবলম্বী

২. ব্যবসা ও ব্যবসায়ী বান্ধব পরিবেশ।

অনেক ইউরোপিয়ান কোম্পানি, তাদের প্রধান কার্যালয়গুলো মাল্টাতে স্থানান্তর শুরু করছেন। ইউরোপের অন্যান্য দেশে প্রায় আট মাসই ঠান্ডা এবং বৈরী আবহাওয়ার শিকার হতে হয়। মাল্টায় এই অসুবিধাটা নেই। এখানে প্রায় ১১ মাসেই অনুকূল আবহাওয়া এবং পরিবেশ পাওয়া যায়।

ভূমধ্যসাগরের নান্দনিক দ্বীপ রাষ্ট্র মাল্টা, এখানে পর্যটকদের আনাগোনা সারাবছরই লেগে থাকে। এবং এখানকার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলো পর্যটকদের উপরে অধিক নির্ভরশীল। যেহেতু মাল্টা পর্যটক নির্ভরশীল একটি রাষ্ট্র, ফলে এখানে অধিক পর্যটককে সেবা দিতে বিভিন্ন হোটেল, মোটেল, রেস্টুরেন্ট ও অন্যান্য পর্যটক বিনোদন কেন্দ্র তৈরি হয়েছে এবং হচ্ছে। ফলে মাল্টাতে সারাবছরই বিভিন্ন অবকাঠামোগত উন্নয়নের কাজ হয়ে থাকে।

দেশটিতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনার জন্য সারাবছরই দক্ষ ও যোগ্য জনশক্তির দরকার হয়। ২০১৯ সালের জুলাই মাসে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আব্দুল মোমেন দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে মাল্টায় ভ্রমণ করেন, দ্বিপাক্ষিক অনেক আলোচনার মধ্যে একটি এজেন্ডা ছিল বাংলাদেশ থেকে দক্ষ জনশক্তি নেবে দেশটি, সঙ্গে তাদের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি করবে।

মাল্টায় যাবেন যেভাবে

মাল্টায় আপনি মূলত কয়েকটা ক্যাটাগরিতে যেতে পারেন।

১. দক্ষ জনশক্তি (Work permit)

২. টুরিস্ট ভিসা (Tourist visa)

৩. স্টুডেন্ট ভিসা; (Student Visa)

৪. ইনভেস্টমেন্ট রেসিডেন্ট পারমিট (MRVP)

৫. পাসপোর্ট প্রোগ্রাম ( Passport)

দক্ষ ও যোগ্য জনশক্তি ( Work permit)

যেহেতু মাল্টাতে অনেক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পর্যটক নির্ভর এবং ব্রেক্সিটের পর মাল্টার গুরুত্ব ইউরোপিয়ান ব্যবসায়ীদের কাছে অধিক গুরুত্বপূর্ণ। দেশটিতে অনেক অবকাঠামোগত (construction) উন্নয়নের কাজ হচ্ছে এবং এটি পর্যটক নির্ভর দেশ। তাই অনেক প্রতিষ্ঠানে সেবার মান বৃদ্ধি করতে দক্ষ ও যোগ্য শক্তির প্রয়োজন হচ্ছে। বাংলাদেশ থেকে দক্ষ ও যোগ্য ব্যক্তিরা কর্মসংস্থানের জন্য দেশটিতে যেতে পারেন।

টুরিস্ট ভিসা

ভ্রমণ ভিসা নিয়েও দেশটিতে সাময়িক সময়ের জন্য যাওয়া যায়। যারা অবকাশ যাপনের জন্য যেতে চান (অবশ্যই ৯০ দিনের কম), তারা বাংলাদেশ থেকে ইতালিয়ান এম্বাসির মাধ্যমে আবেদন করে টুরিস্ট ভিসা নিয়ে বাংলাদেশে থেকে যেতে পারবেন।

স্টুডেন্ট ভিসা

মাল্টা ইউনিভার্সিটি ইউরোপের একটি প্রাচীন ইউনিভার্সিটির একটি। বাংলাদেশ থেকে কিছু শিক্ষার্থী বর্তমানে মাল্টা ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনা করছেন। বিশ্বের একমাত্র মেরিটাইম ইনস্টিটিউট এবং মেরিটাইম ল এই মাল্টা থেকেই শুরু হয়েছিল। সেখানেও মেরিটাইম বা সমুদ্র আইন নিয়ে উচ্চতর পড়ালেখা করা যায়।

MCAST college মাল্টার একটি প্রসিদ্ধ কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কলেজ। এখানকার পড়াশোনার মান অনেক ভালো। মূলত কারিগরি শিক্ষার উন্নয়নের জন্যই MCAST প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। বাংলাদেশি ছাত্রদের এখানেও পড়াশোনার অনেক সুযোগ রয়েছে।

এছাড়াও মাল্টায় অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে, বাংলাদেশ থেকে কোনো আগ্রহী প্রার্থী সেসব প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করে যেতে পারেন।

ইনভেস্টমেন্ট রেসিডেন্ট পারমিট (MRVP)

মাল্টা ইউরোপের একটি গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রে পরিণত হওয়ায় এবং ভবিষ্যতে বিজনেস কেন্দ্র হিসেবে মাল্টার গুরুত্ব অপরিসীম। বিশ্বের মধ্যে একমাত্র ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যাংক মাল্টাতে অবস্থিত। এবং দেশটি একটি চেইন আইল্যান্ড।

যেহেতু মাল্টার জিডিপি ঊর্ধ্বগতি হচ্ছে, সেহেতু ইনভেস্টরদের জন্য মাল্টা একটি আদর্শ স্থান। যদি কেউ মাল্টাতে ইনভেস্টমেন্ট করতে চান, তাহলে ইনভেস্টমেন্ট করেও সপরিবারে থাকার সুযোগ পাওয়া সম্ভব। থাকার পারমিট সপরিবারে দেওয়া হয়। তবে, রেসিডেন্সি প্রোগ্রাম করতে হলে, অবশ্যই আপনাকে নির্দিষ্ট রেজিস্টার্ড আইনজীবীর মাধ্যমে করতে হবে। এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্যের জন্য imperidusmalta@yahoo.com এই ই-মেইলে যোগাযোগ করতে পারেন।

মাল্টা যদি আপনার ভালো লাগে এবং আপনি স্থায়ী হতে চান। তাহলে আপনি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা দিয়ে সপরিবারে নাগরিকত্ব নিতে পারবেন। আপনাকে অবশ্যই নির্দিষ্ট রেজিস্টার্ড আইনজীবীর মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। বিস্তারিত জানার জন্য উল্লিখিত ই-মেইলে যোগাযোগ করুন।

বাংলাদেশ থেকে যারা যাবেন, তাদের মনে রাখা উচিত, অবশ্যই আপনাকে নির্দিষ্ট উদ্দেশ্যেই মাল্টাতে যেতে হবে। যেহেতু এটি একটি দ্বীপ রাষ্ট্র, সেখানে আইন-শৃঙ্খলা অনেক কঠোরভাবে পালন করা হয়।