২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৪ই রজব, ১৪৪২ হিজরি

মৌলভীবাজারে প্রবাসীর স্ত্রীকে অর্ধনগ্ন করে লাঠিপেটা, গ্রেফতার-১


সংবাদদাতা (মৌলভীবাজার) | PhotoNewsBD

১৮ মে, ২০১৯, ১১:১৪ অপরাহ্ণ

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় ওমান প্রবাসীর স্ত্রী ও তিন সন্তানের জননীকে অর্ধনগ্ন করে লাঠিপেটার ঘটনায় জড়িত ‘বিয়েপাগল’ দুই স্ত্রীর স্বামী মোলাইম খানকে অবশেষে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নের কলিমাবাদ এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। শনিবার তাকে মৌলভীবাজার কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

আটক মোলাইম খান (৪৫) ছয় সন্তানের জনক ও উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নের উজানপাড়া গ্রামের মৃত সরল খানের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে মোলাইম খানের ঘরে দুই স্ত্রী রয়েছে। সেখানে তার ছয় সন্তান। এছাড়া তিনি আরও দুই নারীকে বিয়ে করেছিলেন। পরে ওই দুই স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে যান। এলাকায় মোলাইম খানের একাধিক বিয়ে করার প্রবণতার ব্যাপারে ব্যাপক গুঞ্জন রয়েছে।

সর্বশেষ জালিয়াতির মাধ্যমে বিয়ের কাগজ তৈরি করে নিজেকে ওই প্রবাসীর স্ত্রীর স্বামী দাবি করেন তিনি। গত ১৩ মে প্রবাসীর বাড়িতে গিয়ে ওই নারীকে বেধড়ক লাঠিপেটা করেন মোলাইম।

মারধরের ওই ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়।

প্রবাসীর স্ত্রী কুলাউড়া থানায় মোলাইম খানকে আসামি করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ বিষয়টি মামলা হিসেবে গ্রহণ করেন এবং তাকে গ্রেফতারে তৎপরতা শুরু করেন। শুক্রবার গভীর রাতে কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ইয়ারদৌস হাসানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নের কলিমাবাদ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন।

এ বিষয়ে কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইয়ারদৌস হাসান বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, কুলাউড়ায় প্রকাশ্যে প্রবাসীর বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রীকে অর্ধনগ্ন করে ব্যাপক লাঠিপেটা ও সেই নির্যাতনের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।