১৭ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ৭ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

হেফাজতের কঠোর কর্মসূচীর হুমকি


ফটোনিউজবিডি ডেস্ক: | PhotoNewsBD

২ এপ্রিল, ২০২১, ৫:৩২ অপরাহ্ণ

আর একজন নেতাকর্মী গ্রেপ্তার হলে কঠোর কর্মসূচির হুমকি দিয়েছেন হেফাজতে ইসলামের ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মামুনুল হক।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে শুক্রবার (২ এপ্রিল) জুমার নামাজ শেষে রাজধানীর বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এ হুমকি দেন।

মাওলানা মামুনুল হক বলেন, হেফাজতের শান্তিপূর্ণ হরতালে পুলিশ হামলা করেছে। গুলি করে আমার ভাইদের হত্যা করা হয়েছে। আর হামলার দায় চাপানো হচ্ছে আমাদের ওপর। হেলমেট বাহিনীকে গ্রেপ্তার করুন, আমরা হামলাকারীদের বিচার চাই। বিনা উসকানিতে যারা জনতার ওপর হামলা করেছিল তাদের কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। অবিলম্বে হাটহাজারি থানার ওসিকে প্রত্যাহার করতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা শান্ত আছি, আমাদের শান্ত থাকতে দিন। আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর মামলা হামলা হয়রানি বন্ধ করেন। খবর পাচ্ছি আমাদের নেতাকর্মীদের ঘরেবাড়িতে থাকতে দেওয়া হচ্ছে না। আর একজন নেতাকর্মীকে যদি গ্রেপ্তার করা হয়, কোনো সমাবেশে হেলমেট বাহিনী হামলা করে তাহলে আমরা কঠোর কর্মসূচি দেবো।

মামনুল হক বলেন, পুলিশি অভিযানের নামে নাটক সাজানো হচ্ছে। ছুরি কি কাজে ব্যবহার হয় জানেন না? এ নাটক পুরনো। কোরবানি ঈদে হয়ত সে ছুরিগুলো আর সেবা দেবে না। আমরা তা আর রাখব না।

সমাবেশের সভাপতি মাওলানা জুনাইদ আল হাবিব বলেন, পুলিশ রাতে তল্লাশি করে। যাদের ভাই জীবন দিয়েছে তারাই রাতে বাড়িতে ঘুমাতে পারেন না। জামেয়া ইসলামীয়াতে এমপি মোকতাদির চৌধুরীর নেতৃত্বে হামলা হয়েছে। অথচ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। তাকে অবিলম্বে গ্রেপ্তার করতে হবে।

নায়েবে আমির ড. আহমদ আব্দুল কাদের বলেন, যারা মোদিকে রক্ষার আন্দোলনে নেমেছিল তাদের ঠেকাতে হবে। এই সরকারকে হটাতে হবে। এর কোনো বিকল্প নাই।

নায়েবে আমির মাওলানা আব্দুর রব ইউসুফি বলেন, আমরা আইজিপির কাছে জানতে চাই, পরিস্থিতি দেখবেন নাকি পরিস্থিতি তৈরি করবেন। আপনার উদ্দেশ্যপ্রবণ সদস্যদের থামান। কয়টা হেলমেট কেড়ে এনেছেন যে আমাদের ছুরি নিয়ে গেলেন।

হেফাজতের ঢাকা মহানগরের সভাপতি জোনায়েদ আল হাবিবের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের নায়েবে আমির ড. আহমদ আব্দুল কাদের, নায়েবে আমির ড. আব্দুর রব ইউসুফী, মাওলানা শাখাওয়াত হোসেন, হেফাজতের অর্থ সম্পাদক মাওলানা মনির হোসেন কাসেমী, মাওলানা জসিম উদ্দিন, আহমেদ আলী কাসেমী প্রমুখ।